স্মৃতি আক্তার হাফসা কে লাগাতার ধর্ষণ রেপিস্ট রাব্বির বিচার চায় মা কমলা বেগম।

0
8

দৈনিক ভোলা সময় নিউজ।

স্মৃতি আক্তার হাফসা কে লাগাতার ধর্ষণ
রেপিষ্ট রাব্বির বিচার চায় মা কমলা বেগম।

ইত্তিজা হাসান মনির, জেলা প্রতিনিধি বরগুনা।

কথিত সাংবাদিক সেই গোলাম রাব্বির বিরুদ্ধে এবার এক ১০শ শ্রেনীর স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাতে বরগুনা সদর থানায় তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন নির্যাতিত ওই ছাত্রীর মা কমলা বেগম। এ ঘটনার পর থেকেই পলাতক রয়েছেন গোলাম রাব্বি।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত ২৬ সেপ্টেম্বর এক বন্ধুর বাসায় নিয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থী ওই ছাত্রীকে পাশবিক নির্যাতন করে রাব্বি। এরপর ধর্ষণের অভিযোগ থেকে বাঁচতে ওই ছাত্রীর সঙ্গে বিয়ের একটি ভুয়া কাবিননামা তৈরি করেন তিনি। এরপর এ ঘটনা স্থানীয়রা পুলিশকে অবগত করলে পুলিশ ওই বাসায় অভিযান চালায়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে রাব্বি পালিয়ে যায়। পরে সেখান থেকে ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে পুলিশ।
বরগুনা এলজিইডি অফিসের ওয়ার্ক এসিস্ট্যান্ট কামরুল ইসলাম ও পৌরসভার কর্মকর্তা জেসমিন সুলতানা দম্পতির সন্তান গোলাম রাব্বি।বয়স ত্রিশের কোটায় পৌঁছার আগেই নারী নির্যাতন,ধর্ষণ, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও মাদক নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলার আসামি গোলাম রাব্বি।
সরকারি চাকরিজীবী বাবা-মায়ের প্রভাব ও টাকার জোরে বহু অভিযোগ থেকে বিনা বিচারে মুক্তিও পেয়েছেন রাব্বি। সাংবাদিকতার মহৎ পেশাকে সাইনবোর্ড হিসেবে টানিয়ে এরকম জঘন্য কাজে লিপ্ত থাকে সে। রাব্বি দৈনিক সরেজমিন পত্রিকার বরগুনা সদর উপজেলা প্রতিনিধি হিসেবে আছেন বলে জানা গেছে।

বরগুনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে, এম তারিকুল ইসলাম জানান, ধর্ষণের অভিযোগে রাব্বির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে ভুক্তভোগী কিশোরীর মা কমলা বেগম। ঘটনার পর থেকেই রাব্বী পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। তিনি আরও বলেন, ধর্ষণের অভিযোগে এর আগেও রাব্বীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। এছাড়াও সে মাদক মামলায়ও অভিযুক্ত।

পূর্ববর্তী খবরভোলার তজুমুদ্দিন মা ইলিশ রক্ষায় মৎস্য ব্যবসায়ী ও জেলেদের নিয়ে সচেতনতামূলক সভা।
পরবর্তী খবরস্মৃতি আক্তার হাফসাকে লাগাতার ধর্ষণ রেপিস্ট রাব্বির বিচার চায় মা কমলা বেগম।