মানবাধিকার নেত্রীর ঘরে পুত্রবধুর লাশ।

0
11

মানবাধিকার নেত্রীর ঘরে পুত্রবধুর লাশ

স্টাফ রিপোর্টার

চরফ্যাশনে মানবাধিকার নেত্রীর ঘরে পুত্রবধুর লাশ
ভোলার চরফ্যাশনের নিপা বেগম (১৬) নামের এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছেন থানা পুলিশ। তবে শারিরীক ও মানুষিক নির্যাতনের অভিযোগ এনে গৃহবধূর বাবা হেলাল উদ্দিন বাদি হয়ে প্রধান অভিযুক্ত গৃহবধূর স্বামীসহ ৪জনকে আসামি করে ঢাকা মেট্রপলিটন থানায় এজাহার দায়ের করেন।

গত ৬ এপ্রিল শনিবার রাত ১০ টায় ঢাকার আদাবর থানা এলাকার মোহাম্মদিয়া হাউজিং সোসাইটির এ/পি ২৩৩ নম্বর বাড়ির ৬ষ্ট তলায় এঘটনা ঘটে।
নিহত গৃহবধূ নিপা ভোলার চরফ্যাশন পৌরসভা ৪ নম্বর ওয়ার্ডের মো. হেলাল উদ্দিনের মেয়ে।
আসামিরা হলেন – প্রধান রায়হানুল হক মুগ্ধ, (মা) মাহমুদা খানম মিলি, (বাবা) জহিরুল ইসলাম নান্টুসহ ৪জনকে আসামি করা হয়। এরা সবাই ঢাকার ২৩৩ নম্বর বাড়িতে বসবাস করতেন।

এজাহার সুত্রে জানাযায়, গৃহবধূ নিপা ঢাকার উদ্যান সরকারি কলেজে এইচএসসি ১ম বর্ষের নিয়মিত শিক্ষার্থী ছিলেন, সেখান থেকে রায়হানের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে পরে গত ৯মাস আগে তাদের বিবাহ হয়। বিবাহের পর থেকেই রায়হানের পরিবারের লোকজন নিপাকে শারিরীক নির্যাতন করতেন। আসামিদের নির্যাতন কারনেই সিলিং ফ্যানের সাথে ওরনা পেছিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মাহত্যা করেন।
তবে গৃহবধূর বাবা হেলাল উদ্দিন বলেন, আসামিরা আমার মেয়েকে পিটিয়ে হত্যা করে ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে রেখেছে।

ঢাকা মেট্রপলিটন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান, নিহতের লাশ উদ্ধার করে হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।বিষয়টি তদন্তধীন রয়েছে রিপোর্ট আসলে মৃত্যুর কারণ জানাযাবে।

পূর্ববর্তী খবরভোলায় ৮ দফা দাবিতে দলিত ও বঞ্চিত জনগোষ্ঠী অধিকার আন্দোলন এর মানববন্ধন।
পরবর্তী খবরভোলায় ২ হাজার দরিদ্র ও বঞ্চিত মানুষের মাঝে শাড়ি লুঙ্গি ও নগদ অর্থ বিতরণ।