ভোলা রাজাপুরে প্রকাশ্যে গুলি, আহত ১০ আটক ৪ উদ্ধার হয়নি আগ্নেয়াস্ত্র।

0
8

ভোলা রাজাপুরে প্রকাশ্যে গুলি, আহত ১০ আটক ৪ উদ্ধার হয়নি আগ্নেয়াস্ত্র।

স্টাফ রিপোর্টার,

ভোলার রাজাপুর ৯নং ওয়ার্ডের নির্বাচিত মেম্বার হেলাল গ্রুপ ও ফকির গ্রুপের মধ্যে বিগত চার বছর ধরে থেমে থেমে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে আসছে । হেলালের আক্রমন থেকে রেহাই পাননি তার আপন ভাই,ভাতিজা এমনকি ছোট ভাইয়ের স্ত্রী ও।
হেলাল বাহিনীর সদস্যরা কিছুদিন আগে হেলালের আপন ভাই আলাউদ্দিন এর পুত্র সিফাতকে প্রকাশ্যে গুলি করে, গুলির আঘাত প্রাপ্ত না হলেও সিফাতকে ধরে রড দিয়ে পিটিয়ে ডান পা ভেঙ্গে দেয় । গুলি করা বোমা বিস্ফোরণ ঘটানো যেন হেলাল গ্রুপের নিত্যদিনের রুটিন কাজ।
তারই জের ধরে আজ বুধবার ১৩ এপ্রিল সকাল ৮টার দিকে হেলাল গ্রুপের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছিল। উত্তেজনার এক পর্যায়ে হেলাল মেম্বার গ্রুপের লোকজন বোমা বিস্ফোরণ ও গুলি বর্ষন করে পুরো ক্লোজার বাজার এলাকা আতঙ্কিত করেন বলে জানান স্থানিয়রা। এসময় মিন্টু দেওয়ান ও আলি শিয়ালীর করা গুলির আঘাতে কবির মঞ্জুর ও আনোয়ার গাজি নুরনবী তিনজন গুলিবিদ্ধসহ আহত হয়েছে অন্তত ১০ জন। তাদের মধ্যে গুলিবিদ্ধ ৩ জনকে প্রথম ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরন করেন ।

অনুসন্ধানে জানা যায়, বিগত চার বছর পুর্বে ক্লোজার বাজার সংলগ্ন কালাম শিকদার গংদের জমি দখলে করে নিয়েছেন শফি দেওয়ান গ্রুপ। ভূমি দখল ও রেকর্ড সংশোধনী বিষয়ে আদালতে দু গ্রুপের একাধিক মামলা চলমান রয়েছে । নালিশি ভূমিতে ১৪৪/১৪৫ নিষেধাজ্ঞা বিরাজমান থাকলেও লর্ড হেলাল গ্রুপ নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ঐ নালিশি ভূমিতে পাকা ঘর স্থাপন করেছেন, তার জের ধরেও একাধিকবার সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে । অসৎউপায় অবলম্ভন করেও এই নালিশি ভূমির খতিয়ানের অংশিদার বাদ রেখে রেকর্ড জালিয়াতি করে দলিল দেয়ার ঘটনাও ঘটান সফিদেওয়ান গংরা। এদিকে ঐ রেকর্ড সংসোধনীর জন্য প্রযোজ্য অন্যতম ওয়ারিশা সনদে চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর জাল করার অপরাধে জেল খেটেছেন হেলাল গ্রুপের কজন ।

এদিকে আজকের ঘটনার বিষয়ে কালাম শিকদার বলেন গত ৬ এপ্রিল ২০২২ পুলিশ ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী ইয়াবা বাবুকে আটক করতে নাজিম সহায়তা করছে বলে অভিযোগ তুলে বাবু নাজিম ফকিরের দোকান লুটকরে ও নাজিমকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে যায় নাজিম । সে ঘটনায় থানায় মামলা না নেয়ার কারনে গতকাল ভোলা সদর চীপজুডিশিয়াল কোর্টে একটি মামলা দায়ের করেন নাজিম গংরা । বাবু গংদের আসামি করে মামলা আনয়ন করার কারনেই আসামিরা বেপরোয়া হয়ে আজ সকালে ক্লোজার বাজারে প্রকাশ্য দিবালোকে বাবু,মিন্টু ও আলী শিয়ালি আমাদের লক্ষ করে এলোপাতাড়ি গুলি করেছেন বলে দাবি করেন কালাম সিকদার । সেই গুলির আঘাতে মঞ্জু,আনোয়ার, ও কবির গুরুতর আহত হয়েছেন। তবে মিন্টু, বাবু,ও আলী কে অবৈধ অস্ত্রের যোগানদাতা ও শেল্টার দাতা হেলাল মেম্বার বলেও প্রকাশ করেন কালাম সিকদার।

এবিষয়ে হেলাল গ্রুপের প্রধান হেলাল মেম্বারকে কল রিসিভ না করার কারনে তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ভোলা সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. এনায়েত হোসেন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। বর্তমানে ঐ এলাকার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। তবে এখনও ওই এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পূর্ববর্তী খবরলালমোহনে ইউপি সদস্যের সরকারি ঘর দেওয়ার নামে টাকা আত্মসাৎ টাকা চাওয়ায় পরিকল্পিত হামলা।
পরবর্তী খবরচরফ্যাশন তরমুজ চুরিকে কেন্দ্র করে ফের সংঘর্ষ,আটক( ২)