বোরহানউদ্দিনে আওয়ামী লীগ নেতা নাগর হাওলাদারকে ফাঁসাতে মরিয়া প্রতিপক্ষ।

0
6

বোরহানউদ্দিনে আওয়ামী লীগ নেতা নাগর হাওলাদারকে ফাঁসাতে মরিয়া প্রতিপক্ষ

ভোলা বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধি:

বোরহানউদ্দিন উপজেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি ও পক্ষিয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নাগর হাওলাদারের রাজনৈতিক সুনাম ক্ষুণ্ন করতে একের পর এক ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে তার প্রতিপক্ষ একটি কুচক্রী মহল।

স্থানীয়রা জানান, পক্ষিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নাগর হাওলাদার নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী আলাউদ্দিন সরদার চশমা প্রতীকে নির্বাচিত হন। নির্বাচন পরবর্তী সময়ে নৌকা প্রতীক নিয়ে নাগর হাওলাদার পরাজিত হলে তার সমর্থকের উপর কয়েক দফা হামলা চালায় (স্বতন্ত্র) নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আলাউদ্দিনের লোকজন।

গত বৃহস্পতিবার (১২ মে) পক্ষিয়া ৮ নং ওয়ার্ডে আলাউদ্দিন সরদার সমর্থক জলিল ম্যানেজারের ছেলে রিয়াজ এর নেতৃত্বে ওই ওয়ার্ডের আব্দুল মালেকের ছেলে হান্নান এর উপর হামলা করা হয়। হান্নান ও রিয়াজের মধ্য মাদক বিক্রি ও সেবন এর অভিযোগ রয়েছে। ইউপি নির্বাচনে হান্নান আলাউদ্দিন সরদার কর্মী হয়ে কাজ করেন। নির্বাচন পরবর্তী সময়ে হান্নান ও আলাউদ্দিন সরদার এর মধ্য পরিষদের ভাগ বাটোয়ারা নিয়ে দ্বন্দ্ব শুরু হয়।

আলাউদ্দিন চেয়ারম্যানের দুর্নীতি ও অনিয়মের বিরুদ্ধে হান্নান বক্তব্য দিয়েছিলেন। যাহা সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ হয়। ওই বক্তব্যের জের ধরে আলাউদ্দিন সরদার এর পক্ষ থেকে হান্নান এর উপর বিভিন্ন হুমকি-ধামকি ও চাপ প্রয়োগ করা হয়েছিলো।

এরই রেশ ধরে আলাউদ্দিন চেয়ারম্যানের লোকজন হান্নানকে মারধর করে বোরহানউদ্দিন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে ভয়-ভীতি দেখিয়ে নাগর হাওলাদারের বিরুদ্ধে মিথ্যা বক্তব্য নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে ছড়িয়ে প্রোপাগান্ডা ছাড়া। হান্নানকে দিয়ে বলানো হয় আলাউদ্দিন চেয়ারম্যানকে হত্যা করার জন্য হান্নানকে ভাড়া করা হয়েছে। বিষয়টি বোরহানউদ্দিন থানা পুলিশের নজরে আসলে হান্নানকে জিজ্ঞাসাবাদে করা হলে হান্নান তা অস্বীকার করেন। এবং হাসপাতাল ছেড়ে পালিয়ে যায়।

নাগর হাওলাদার জানান, আমার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ আমাকে বেকায়দায় ফেলতে বারবার আমার বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্র করছে। অতি শীঘ্রই তাদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

এ ঘটনায় আলাউদ্দিন চেয়ারম্যান চেয়ারম্যান জানান, আমাকে হত্যার ষড়যন্ত্র হচ্ছে। আমাকে হত্যার সকল ষড়যন্ত্র হান্নান বলে দিয়েছে। আমি জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

এ বিষয়ে বোরহানউদ্দিন থানার ওসি শাহিন ফকির (বিপিএম) জানান, মাদক বিক্রেতা ও সেবনকারীদের মধ্য মারধরের ঘটনা শুনেছি। নাগর হাওলাদার আলাউদ্দিন চেয়ারম্যানকে হত্যার ষড়যন্ত্র করছে এধরনের কোন বক্তব্য হান্নান জিজ্ঞাসাবাদে আমাদেরকে জানায়নি।

পূর্ববর্তী খবরভোলার বাপ্তায় পুলিশের ক্ষমতা দেখিয়ে বৃদ্ধার জমি জবর দখলের অভিযোগ।
পরবর্তী খবরভিটে মাটি রক্ষার দাবীতে ভোলার রাজাপুরে হাজারো মানুষের মানববন্ধন।