নৌকার মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মিজান খান কে বরণ করতে জনতার ঢল।

0
12

নৌকার মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মিজানক খাঁনকে বরণ করতে জনতার ঢল

ইকবাল হোসেন রাজু,

ভোলা সদর উপজেলা ১ নং রাজাপুর ইউনিয়নে আসন্ন ইউপি চেয়ারম্যানে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান খাঁনকে বরণ করে নিতে ইলিশা লঞ্চঘাটে হাজারো কর্মীর ঢল নেমেছে।

মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) তিনি ঢাকা থেকে কর্ণফুলী-১৪ লঞ্চযোগে ইলিশাঘাট হয়ে তাঁর নির্বাচনী এলাকা রাজাপুর ইউনিয়নের মাটিতে প্রথম পা ফেলেই ধন্যবাদ জানান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও দেশনেত্রী শেখ হাসিনাকে।

এছাড়াও বিশেষ ভাবে ধন্যবাদ জানিয়েছেন ৬৯’র গণঅভ্যুত্থানের মহানায়ক জীবন্ত কিংবদন্তী ভোলা মাটি ও মানুষের নেতা আলহাজ্ব তোফায়েল আহমেদ এমপি মহোদয়কে।

এসময় সাধারণ জনগণ ও তাঁর দলীয় নেতাকর্মীদের শ্লোগানে শ্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠে তার নির্বাচনী এলাকা প্রিয় রাজাপুর ইউনিয়ন। এ সময় তিনি রাজাপুর ইউনিয়নের সাধারণ জনগণ ও তাঁর দলীয় নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে রাখেন।

তিনি বলেন, জনগণই সকল ক্ষমতার উৎস। রাজাপুর ইউনিয়নের জনগণ চেয়েছেন বলেই আজ আমি দলীয় নৌকা প্রতীক পেয়েছি। আমি যতদিন বাচবো সুখে দুঃখে রাজাপুর ইউনিয়নবাসীকে নিয়েই বাঁচবো।

এসময় তিনি আরো বলেন, আসন্ন ইউপি নির্বাচনে ৫ জানুয়ারি তিনি নৌকা প্রতীকে বিপুল ভোটে জয়লাভ করবেন। তাই তাঁর দলীয় সকল নেতাকর্মী ও জনগণকে মিলেমিশে কাজ করার জন্য আহবান জানান। পরে তিনি ইউনিয়ন জুড়ে মোটরসাইকেল শোডাউন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ বিভিন্ন নেতা-কর্মী।নৌকার মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মিজান খাঁনকে বরণ করতে জনতার ঢল

ইকবাল হোসেন রাজু,

ভোলা সদর উপজেলা ১ নং রাজাপুর ইউনিয়নে আসন্ন ইউপি চেয়ারম্যানে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান খাঁনকে বরণ করে নিতে ইলিশা লঞ্চঘাটে হাজারো কর্মীর ঢল নেমেছে।

মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) তিনি ঢাকা থেকে কর্ণফুলী-১৪ লঞ্চযোগে ইলিশাঘাট হয়ে তাঁর নির্বাচনী এলাকা রাজাপুর ইউনিয়নের মাটিতে প্রথম পা ফেলেই ধন্যবাদ জানান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও দেশনেত্রী শেখ হাসিনাকে।

এছাড়াও বিশেষ ভাবে ধন্যবাদ জানিয়েছেন ৬৯’র গণঅভ্যুত্থানের মহানায়ক জীবন্ত কিংবদন্তী ভোলা মাটি ও মানুষের নেতা আলহাজ্ব তোফায়েল আহমেদ এমপি মহোদয়কে।

এসময় সাধারণ জনগণ ও তাঁর দলীয় নেতাকর্মীদের শ্লোগানে শ্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠে তার নির্বাচনী এলাকা প্রিয় রাজাপুর ইউনিয়ন। এ সময় তিনি রাজাপুর ইউনিয়নের সাধারণ জনগণ ও তাঁর দলীয় নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে রাখেন।

তিনি বলেন, জনগণই সকল ক্ষমতার উৎস। রাজাপুর ইউনিয়নের জনগণ চেয়েছেন বলেই আজ আমি দলীয় নৌকা প্রতীক পেয়েছি। আমি যতদিন বাচবো সুখে দুঃখে রাজাপুর ইউনিয়নবাসীকে নিয়েই বাঁচবো।

এসময় তিনি আরো বলেন, আসন্ন ইউপি নির্বাচনে ৫ জানুয়ারি তিনি নৌকা প্রতীকে বিপুল ভোটে জয়লাভ করবেন। তাই তাঁর দলীয় সকল নেতাকর্মী ও জনগণকে মিলেমিশে কাজ করার জন্য আহবান জানান। পরে তিনি ইউনিয়ন জুড়ে মোটরসাইকেল শোডাউন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ বিভিন্ন নেতা-কর্মী।

পূর্ববর্তী খবরপশ্চিম ইলিশা ইউনিয়নের নৌকার প্রার্থী জহির কে বরণ করতে হাজারো মানুষের ঢল।
পরবর্তী খবরভোলার ধনিয়া ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন ফেরদৌস বাহাদুর।