তোফায়েল আহমেদ বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সকল সিদ্ধান্ত আন্তর্জাতিকভাবে প্রশংসনীয় হচ্ছে।

0
8

দৈনিক ভোলা সময় নিউজ।

বিশেষ প্রতিনিধি, মোঃ সাদমান সায়েম।

করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সকলকে ঘরে থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহবান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী সংসদীয় কমিটির সভাপতি ও সাবেক বানিজ্য মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ এমপি।

আজ ২ ই জুলাই শুক্রবার বিকালে ভোলার জেলার সদর উপজেলার উত্তরাঞ্চালের ৫টি ইউনিয়নের সংযোগ পরাণগঞ্জ বাজারে জেলা প্রশাসক মোঃ তৌফিক ই লাহী চৌধুরীর সভাপতিত্বে বাজারকমিটি সভাপতি-সম্পাদক , ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যবৃন্দ স্থানীয় স্কুল, কলেজ , মাদ্রাসার প্রধানদের এক ঘরোয়া বৈঠকে ঢাকা থেকে ভার্চুয়ালি প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের প্রবীন নেতা ৬৯ এর মহানায়ক তোফায়েল আহমেদ।

তিনি বলেন, সকলকে কঠোর লকডাউনের নিয়ম মেনে চলতে হবে। করোনা পরিস্থিতির প্রথম ঢেউ যেভাবে মোকাবেলা করা হয়েছে, তেমনি নিয়ম মেনে চললে চলমান ও পরবর্তী ঢেউ মোকাবেলা করা সম্ভব হবে। প্রধানমন্ত্রীর সকল পদক্ষেপ আন্তর্জাতিকভাবে প্রশংসিত হচ্ছে বলেও উল্লেখ করে সকলকে লকডাউন সফল করতে অনুরোধ জানান তোফায়েল আহমেদ।

জেলা প্রশাসক তার বক্তব্যে জানান, ঘরে থাকা কোন ব্যক্তির খাদ্য সমস্যা দেখা দিলে , জেলা প্রশাসনের তরফ থেকে তার ঘরে খাদ্য পৌঁছে দেয়া হবে। গ্রামের বাজারগুলোতে লকডাউন কর্মসূচি সফল করতেই এই ঘরোয়া বৈঠক করা হয় বলেও জানান জেলা প্রশাসক। এ সময় সিদ্ধান্তমূলক আরো বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মিজানুর রহমান, কাচিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগ যুগ্ম সম্পাদক ও কাচিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জরুল ইসলাম নকিব, ভোলা প্রেসক্লাব সম্পাদক অমিতাপ রায় অপু, পরাণগঞ্জ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রব, দাখিল মাদ্রাসার সুপার মোঃ বেলায়েত হোসেন, পরাণগঞ্জ বাজার সমিতির সম্পাদক এডভোকেট সাহাদাত হোসেন শাহীন।

উত্তর ভোলার ৫টি ইউনিয়নের শতাধিক ছোট বাজার নিয়ন্ত্রন রাখতেই এই বৈঠকে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।
নির্দিষ্ট দূরত্বে কাচাবাজার বসানো ছাড়া সব ধরনের দোকান বন্ধ রাখতে মাইকিং করা হয়।অহেতুক কেই ঘর থেকে বেড় হলে তাকে গ্রেফতার করা হবে বলেও ঘোষনা দেয়া হয়। বৈঠকে ৫ ইউনিয়নের ২৫ জন প্রতিনিধি অংশ নেন। উল্লেখ্য এই সব ইউনিয়ন হয়ে ট্রলার যোগে ঢাকা চট্টগ্রামের যাত্রীরা ভোলায় প্রবেশ করছিল। ওই সব ট্রলার যাতে চলতে না পারে তারও সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। পরে জেলা প্রশাসক বিভিন্ন বাজার এলাকা পরিদর্শন করেন। উল্লেখ গত দুই দিনে জেলার বিভিন্ন বাজার এলাকা থেকে দুই শতাধিক ব্যক্তিকে জরিমানা করা হয়েছে।

পূর্ববর্তী খবরকঠোর লকডাউন এর প্রথম দিনে ভোলা সচেতন মূলক অভিযান।
পরবর্তী খবরভোলায় নিষেধাজ্ঞা অমান্য, দুইদিনে ২৮৭ জনের জরিমানা।