ডা: জাফরুল্লাহ কে মারতে উদ্যত হলেন ছাত্রদলের নেতারা।

0
27

দৈনিক ভোলা সময় নিউজ।

ডা.জাফরউল্লাহকে মারতে উদ্যত হলেন ছাত্রদলের নেতারা।

বিশেষ প্রতিনিধি,

বর্তমান সরকারের আমলে নতুন নতুন পত্রিকা, টিভি চ্যানেল বাড়লেও প্রতিদিনই নানা সেমিনারে বিএনপি নেতারা অভিযোগ করেন দেশে মতপ্রকাশের স্বাধীনতা নেই। নিজেরা সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করলেও মত প্রকাশের স্বাধীনতার বিষয়ে বিএনপির অবস্থান কি?

শনিবার (২৬ জুন) জাতীয় প্রেসক্লাবে একটি আলোচনা সভায় দেশের রাজনীতি নিয়ে কথা বলছিলেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। এসময় সরকারের বিভিন্ন কাজের সমালোচনার পাশাপাশি বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সমালোচনা করেন ডা. জাফরুল্লাহ।

আর এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন সেমিনারে উপস্থিত থাকা ছাত্রদলের নেতারা। তারা ডা. জাফরুল্লাহর দিকে তেড়ে আসেন। ছাত্রদলের নেতারা এসময় উদ্যত ভঙ্গিতে ডা. জাফরুল্লাহকে বলেন, আপনি বিএনপির কেউ না, সুতরাং তারেক রহমানকে নিয়ে কিছু বলতে পারবেন না।

এর উত্তরে একজন নাগরিক হিসেবে মত প্রকাশের অধিকার আছে জানালে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা ডা. জাফরুল্লাহকে মারতে উদ্যত হন। এসময় তারা ডা. জাফরুল্লাহকে বলেন, ”আপনার কিছু হয়ে গেলে আমরা দারী থাকব না।” এই হুমকি দিয়ে ছাত্রদলের নেতারা অনুষ্ঠানস্থল থেকে চলে যান।

যে দলের নেতাকর্মীরা ক্ষমতার বাইরে থেকেই তাদের নেতার সমালোচনা সহ্য করতে পারে না, ক্ষমতায় গেলে তারা কি করবে? মতপ্রকাশের জন্য প্রকাশ্যে যারা একজন বয়োবৃদ্ধ নাগরিককে এমন হুমকি দেয় সেই সন্ত্রাসীদের দল বিএনপি ক্ষমতায় গেলে কি হবে একবারও ভেবে দেখেছেন কি?

পূর্ববর্তী খবরভোলায় প্রেমিকের ওপর অভিমান করে ১ স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা।
পরবর্তী খবরঅষ্টম শ্রেণির ছাত্রীকে বিচার করতে এসে নিজেই বিয়ে করলেন ইউপি চেয়ারম্যান।