চরফ‍্যাসনে গরু চুরির অপবাদ দিয়ে চার জেলে কে বেধড়ক মারধর।

0
72

চরফ‍্যাসনে গরু চুরির অপবাদ দিয়ে চার জেলে কে বেধড়ক মারধর।

চরফ‍্যাসন (ভোলা) প্রতিনিধিঃ

ভোলার চরফ‍্যাসন উপজেলার দক্ষিণ আইচা থানাধীন চর কুকরী মুকরি ইউনিয়নের চর পাতিলায় নদীতে বৈরী আবহাওয়ার কারণে খালে আশ্রয় নেওয়া জেলেদের উপর পুর্ব শত্রুতার জেরধরে হামলা ও বেধড়ক মারধর করার অভিযোগ উঠেছে চর পাতিলার স্থানীয় প্রভাবশালী বেলাল মেম্বারের বিরুদ্ধে।

শশীভূষণ থানাধীন জাহানপুর ইউনিয়ন ৭ নং ওয়ার্ড ভুক্তভোগী হারুন মাঝির নৌকার মহাজন মোঃ মন্নান হাওলাদার অভিযোগ করে বলেন গত (২২ আগষ্ট)সোমবার বিকালে আমার নৌকা ৭ জন জেলে নিয়ে নদীতে মাছ শিকার করতে যায়,২৩ আগষ্ট মঙ্গলবার বিকালে মাছ শিকার করাকে কেন্দ্র করে আমার নৌকার মাঝি মাল্লার সাথে অন্য নৌকার মাঝি মাল্লার মারামারির ঘটনা হারুন মাঝি আমাকে জানিয়েছেন ,২৪ তারিখে বৈরী আবহাওয়ার কারণে নদীতে ডেউ বেড়ে যায় এতে রাত ৯ ঘটিকার সময় চর পাতিলার সলেমান পাটোয়ারীর খালে আশ্রয় নিয়ে রাতের খাওয়া দাওয়া শেষ করে ঘুমিয়ে পরেন, রাত ২ ঘটিকার সময় বেলাল মেম্বারের নেতৃত্বে ৮/১০ জন লোক এসে আমার মাঝি মাল্লাকে কথা শুনার জন্য উপরে ডেকে নিয়ে নদীতে মারামারির বিষয়ে জিগ্যেস করেন তখন জানাযায় নদীতে হামলা পালটা হামলার নৌকা টি বেলাল মেম্বারের ছিলো এতে কথার কাটাকাটির এক পর্যায়ে আমার মাঝি মাল্লাদের কে পরিকল্পিতভাবে বেধড়ক মারধর করেন এতে মাইনুদ্দিন এবং মাজেদ নামের আমার ২ জন জেলে নদীতে পরে যায়,এখন পর্যন্ত এই দুই জেলের কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি,পরে চর পাতিলার স্থানীয় ইলিয়াস নামের এক ব‍্যক্তির গরু চুরি করার অপবাদ দিয়ে আমার বাকী জেলেদের চর কুকরী মুকরী ফাড়ি থানার পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেন,এবং রাতে গরু মালীক ইলিয়াস কে দিয়ে দক্ষিণ আইচা থানায় একটি গরু চুরি মামলা করান।

এবিষয়ে অভিযুক্ত বেলাল মেম্বারের মোবাইল ফোনে একাধিক বার ফোন দিলে ও মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

এবিষয়ে গরু মালীক মোঃ ইলিয়াসের মুঠো ফোনে কল দিলে তিনি বলেন রাত ২ ঘটিকার সময় আমার বসত ঘরের পাশে থাকা গরু ঘরে চোর প্রবেশ করলে কুকুর ডাক চিৎকার করতে থাকে, এতে আমি ঘর থেকে বের হলে গরু রেখে দুইজন লোক পালিয়ে যায়।পরে জানতে পারি শশীভূষণ থানাধীন আট কপাট থেকে একটি নৌকা এসেছে গরু চুরি করার জন্য এবং তারাই আমার গরু চুরি করতে চেয়েছে,এতে স্থানীয় লোকজন তাদেরকে আটক করে তাদেরকে মারধর করে করে থানায় দিয়েছেন,এবং রাতে আমি দক্ষিণ আইচা থানায় চোরের বিরুদ্ধে মামলা করি,আশ্রই নেওয়া জেলে আপনার বাসায় গরু চুরি করতে গিয়েছেন তা অন্ধকারে আপনি কি ভাবে চিনতে পারলেন,এমন প্রশ্নের কোন সঠিক উত্তর তিনি দিতে পারেননি।

দক্ষিণ আইচা থানার ওসি তদন্ত বলেন চর পাতিলা থেকে গরু চুরি করে নৌকা দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় লোকজন চার জেলেকে আটক করে গণপিটুনি দেন,পুলিশ খবর পেয়ে চার জেলেকে উদ্ধার করে দক্ষিণ আইচা গণস্বাস্থ্য হাসপাতালে ভর্তি করান,পরে তাদের বিরুদ্ধে চুরি মামলা হওয়ায় চার জনকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

পূর্ববর্তী খবরতামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের প্রস্তাবিত খসড়া চুড়ান্তের পক্ষে মতামত দিলো দরিদ্র জনগোষ্ঠীর মানুষজন।
পরবর্তী খবরভোলার তজুমদ্দিনে অপহরণের চৌদ্দ দিন পেরিয়ে গেলেও উদ্ধার হয়নি স্কুল ছাত্রী।