একটা গুলি চললে দশটা গুলি চলবে”বোরহানউদ্দিনে নৌকা প্রার্থীকে পক্ষিয়া ইউপি ছাত্রলীগ সভাপতির হুমকি।

0
189

দৈনিক ভোলা সময় নিউজ।

একটা গুলি চললে দশটা গুলি চলবে” বোরহানউদ্দিনে নৌকা প্রার্থীকে পক্ষিয়া ইউপি ছাত্রলীগ সভাপতির হুমকি

বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধিঃ একটা গুলি চললে দশটা গুলি চলবে। নাগর ভাইয়ের সৈনিকেরা লড়াই করে বাচতে চাই। নাগর ভাইয়ের সৈনিকেরা রাজ পথে তৈরি। ছাত্রলীগের অ্যাকশন ডাইরেক অ্যাকশন। ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার পক্ষিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি নোমানের নেতৃত্বে রবিবার বিকালে বোরহানগঞ্জ বাজারে তার নিজ ফেইসবুক লাইভে এসে মিছিলে এসবকথা বলেন ছাত্রলীগ কর্মী ইসমাইল হোসেন ও আরিফ হোসেনসহ নোমান। আওয়ামীলীগ দলীয় প্রতিক নৌকা না পাওয়ায় পক্ষিয়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও সম্ভাব্য চেয়ারম্যান স্বতন্ত্র প্রার্থী নাগর হাওলাদারে পক্ষে এসব কথা বলেন তারা। তাদের বক্তব্যে গুলির কথা শুনে ভোটার ও সাধারণ মানুষের মাঝে আতংক বিরাজ করছে। সাধারণ ভোটাররা জানান, নৌকা প্রতিক না পেয়ে নৌকা প্রতিক প্রার্থীসহ অন্যান প্রার্থীদেরকে প্রকাশ্য ফেইসবুক লাইভে এসে গুলি করার হুমকির ভিডিওটি অশুভ লক্ষন বলে মনে করেন তারা। এবং পক্ষিয়া ইউনিয়নে সহিংসতা হতে পারে বলে জানান সাধারণ মানুষ। পক্ষিয়া ইউনিয়নের নৌকা প্রতিক চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুল কালাম অভিযোগ করে বলেন, আমি উপজেলা আওয়ামীলীগের কোষাধ্যক্ষ পদে আছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে নৌকা প্রতিক দিয়েছেন। আমাকে ও আমার আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদেরকে গুলি করার হুমকি দিয়ে আসছে ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি নোমান। রবিবার বিকালে বোরহানগঞ্জ বাজারে স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষ হয়ে প্রকাশ্য ফেইসবুক লাইভে এসে মিছিল করে গুলি করার হুমকি দিচ্ছে। আমি বিষয়টি প্রশাসনের নজরে নেওয়ার জন্য দৃষ্টি কামনা করছি।
ভোলা জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিমেল মাহামুদ জানান, ছাত্রলীগ নেতাকর্মী নৌকা মার্কার প্রার্থীর বিরুদ্ধে কাজ করার সুযোগ নেই। নৌকার বিরুদ্ধে গেলে তদন্তকরে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। ভোলা জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ফজলুল কাদের (মজনু মোল্লা) জানান, আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থীর বিরুদ্ধে আওয়ামীলীগ পদে থেকে বিদ্রোহী প্রার্থী হলে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
বোরহানউদ্দিন থানার অফিসার ইনচার্জ শাহিন ফকির (বিপিএম) জানান, এই ধরনের ম্যাসেজ আমাদের কাছে নেই। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। নির্বাচনি সহিংসতা বন্ধে আমাদের মহড়া অব্যাহত আছে।
বোরহানউদ্দিন উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ শহিদুল্লাহ জানান, আমরা বিষয়টি উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষকে জানাচ্ছি, তার পর ব্যবস্থা গ্রহন করব। বোরহানউদ্দিন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সাইফুর রহমান জানান, উপজেলার সকল নির্বাচনি এলাকায় আমাদের নজরদারী রয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

পূর্ববর্তী খবরসরোয়ারের কর্মকাণ্ডে অতিষ্ঠ গ্রামবাসী তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র মোজাম্মেল স্কুলে যেতে ভয় পাচ্ছে।
পরবর্তী খবরখালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনায় ভোলায় স্বেচ্ছাসেবক দলের দোয়া মাহফিল।